টেকের ইতিহাসের একজন গুরুত্বপূর্ণ ও প্রভাবশালী পথিকৃৎ, রিয়ার অ্যাডমিরাল গ্রেস হপার। গণিতের একজন ডিক্টরেট ডিগ্রি অর্জনকারী প্রথম মহিলার মধ্যে অন্যতম। তার নাম অনুসারে গ্রেস হপার সেলিব্রেশন শুরু হয় পরবর্তী তে।

তার দক্ষতা তাকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের নেভাল রিজার্ভে যোগদানের অনুমতি দিয়েছিল, মার্ক কম্পিউটারে কাজ করার জন্য। যুদ্ধের পরে, তিনি মার্কিন নৌবাহিনীতে রিজার্ভ অফিসার হিসাবে রয়ে গেলেন, তিনি আরও উন্নত  দ্বিতীয় মার্ক এবং তৃতীয় মার্ক কম্পিউটারের সাথে কাজ করেছিলেন।

গ্রেস কম্পিউটার ভাষার জন্য প্রথম সংকলক তৈরি করতেও সহায়তা করেছিলেন এবং ১৯৯১ সালে তিনি জাতীয় প্রযুক্তি পদক লাভের প্রথম মহিলা প্রাপ্তি ছিলেন।

গ্রেস হপারের উত্তরাধিকারকে সম্মান জানাতে এবং ভবিষ্যতে প্রজন্মের মহিলাদের প্রযুক্তি হিসাবে অনুপ্রাণিত করার জন্য ডক্টর অনিতা বর্গ এবং ডাঃ টেল হুইটনি ১৯৯৪ সালে গ্রেস হপার সেলিব্রেশন (জিএইচসি) প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। অ্যানিটাবি.আর.এস. ফ্ল্যাগশিপ ইভেন্টটি কম্পিউটারে গবেষণার এবং ক্যারিয়ারের আগ্রহ নিয়ে আসে এবং প্রযুক্তি বিশ্বে মহিলাদের অবদানটি তুলে ধরে।

গ্রেস হপার স্কলারশীপটি আমাদের অংশগ্রহণকারীদের জন্য সহযোগী প্রস্তাব, নেটওয়ার্কিং, এবং পরামর্শ বিষয়ের উপরে গুরুত্ব জ্ঞাপন করেছেন। জিএইচসি উপস্থাপকরা তাদের নিজ নিজ ক্ষেত্রে এমন নেতারা যারা প্রযুক্তিতে বৈচিত্র্যের গুরুত্বকে স্বীকৃতি দেন।

গ্রেস হোপার স্কলারশীপ বিভিন্ন ক্রিয়াকলাপের মাধ্যমে মহিলাদের জন্য পেশাদার বিকাশও সরবরাহ করে থাকে। আজ,গ্রেস হোপার স্কলারশীপটি  হ’ল বিশ্বের প্রযুক্তিবিদদের বিশ্বের বৃহত্তম সমাবেশ, যেখানে সারা বিশ্বের মহিলারা শিখেন, নেটওয়ার্ক তৈরি করেন এবং তাদের অর্জনগুলি উদযাপন করেন।

প্রথমেই হয়ত সবার মনে প্রশ্ন আসতে পারে তাহলে গ্রেস হপার সেলিব্রেশন কি?

গ্রেস হপার সেলিব্রেশন (জিএইচসি) হলো বিশ্বের প্রযুক্তিবিদদের বৃহত্তম সমাবেশ।  কিছুদিন পূর্বে জিএইচসি 2019 এফএল এর অরল্যান্ডোর অরেঞ্জ কাউন্টি কনভেনশন সেন্টারে 1 – 4 অক্টোবর পর্যন্ত হোস্ট করা হয়েছিল। গ্রেস হপার সেলিব্রেশন প্রযুক্তিতে সেরা মহিলাদেরকে সুযোগ প্রদান করে, উদযাপন করে, উৎসাহিত করে এবং উৎসাহ দেয় যারা তাদের প্রতিরোধগুলি বর্ষণ করার সাহস করেছিল এবং তাদের মধ্যে প্রতিভা স্বীকৃতি দিয়েছিল।

যদি আমি জিএইচসিকে এক কথায় বর্ণনা করতে চাই  তবে তা অবশ্যই হওয়া দরকার: ক্ষমতায়ন (নারী ক্ষমতায়ন)।

আমি গ্রেস হপার সেলিব্রেশন সম্পর্কে প্রথম পড়ি তখন আমি হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। প্রযুক্তি, কর্মজীবন, সুযোগ, সাম্যতা এবং প্রযুক্তিতে কথোপকথন সম্পর্কে মহিলাদের উদযাপনের প্রায় চার দিন পড়েছি। মাত্রাটি অনুভব করে এবং ৮৮ টিরও বেশি দেশের ২৫০০০+ মহিলা প্রযুক্তিবিদদের মধ্যে চার দিন কাটাচ্ছে, আমি বলতে পারি জিএইচসি কেবল অন্য কোনও সম্মেলন নয়। এটি একটি অনুভূতি; যেটা আপনি চাইলেও অর্জন করতে পারেন এমন একটি মূল্যবান অভিজ্ঞতা!

Asmany Akter
Asmany Akter – GHC Student Scholar from Bangladesh

গ্রেস হপার সেলিব্রেশনটি অনিতা বার্গ ইনস্টিটিউট ফর উইমেন অ্যান্ড টেকনোলজি (https://anitab.org) এবং অ্যাসোসিয়েশন ফর কম্পিউটিং মেশিনারি (ACM) করে থাকে, আমেরিকাতে অক্টোবরের শেষ দিকে এবং নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত হয়।

জিএইচসি নিশ্চিত করে যে আপনি সুপার অনুপ্রেরণা ও ক্ষমতায়িত হওয়া এবং প্রচুর স্যাব্যাগ বোধ করার চেয়ে কম কিছু ছাড়েন না।

বৃত্তি আবেদনকারী অবশ্যই নীচের বিভাগের অন্তর্ভুক্ত অথবা যারা আবেদন করতে সক্ষম : যদি আপনি ২০২১ সালে আবেদন করেন সেক্ষেত্রে –

  1. একটি স্নাতক ছাত্র যিনি ভর্তি হন এবং ২০২১ অক্টোবর মাসে তাদের ডিগ্রি কোর্সের চূড়ান্ত বছরে। ২০২১ অক্টোবরের আগে স্নাতক প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা যোগ্য নন।
  2. একটি স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীকে অবশ্যই কম্পিউটিং বা কোনও প্রযুক্তিগত দিকে স্নাতকোত্তর অর্জন করবে এমন।
  3. কম্পিউটিং বা কোনও প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে পিএইচডি শিক্ষার্থী।

দয়া করে নোট করুন: শিক্ষার্থী (স্নাতক, স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডি) আবেদনকারীর অবশ্যই কোনও প্রযুক্তিগত পটভূমি হতে হবে এবং একটি ফুলটাইম ডিগ্রি অর্জন করতে হবে।

জিএইচসিআই(GHCI) বৃত্তির সুবিধাসমূহ –

– স্কলারশিপ প্রাপককে জিএইচসিআই সম্মেলনে যোগদানের সুযোগ দেয় এবং এতে সম্পূর্ণ সম্মেলনের নিবন্ধকরণ ফি অন্তর্ভুক্ত থাকে।

– বৃত্তি প্রাপকরা GHCI এর ক্যারিয়ার মেলায় অ্যাক্সেস পান (কেবলমাত্র প্রযুক্তিতে মহিলাদের জন্য)। শিক্ষার্থীরা বৈশ্বিক প্রযুক্তি সংস্থাগুলির সাথে ইন্টার্নশিপ পাশাপাশি পুরো সময়ের কাজের সুযোগ অন্বেষণ করতে পারে।

– বৃত্তি প্রাপকরা তাদের জীবনবৃত্তান্ত জিএইচসিআই ২১ (আবেদনকৃত সাল অনুযায়ী) রেজ্যুমে ডাটাবেসে জমা দিতে পারবেন, এটি জিএইচসিআই ২১ (আবেদনকৃত সাল অনুযায়ী) স্পনসর সংস্থা দেখেছে। জিএইচসিআই ২১ (আবেদনকৃত সাল অনুযায়ী) রেজ্যুমে ডেটাবেস ২০২১ (আবেদনকৃত সাল অনুযায়ী) আগস্টে খোলা হবে  পরে এটা আরও আপডেটের করা হবে

জিএইচসি সাধারণত  ৩ ধরনের স্কলারশিপ  প্রদান করে থাকেন তার মধ্যে একটিতে ফ্যাকাল্টি এবং স্টুডেন্ট  স্কলারশিপও অন্তর্ভুক্ত :

জিএইচসি স্কলার্স প্রোগ্রামটি এমন মহিলাদের জন্য তহবিল সরবরাহ করে যা হয়  স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী, স্নাতক শিক্ষার্থী বা অনুষদগুলিতে আমাদের উদযাপনে অংশ নিতে সহজতর করে। যে মহিলারা পণ্ডিত হিসাবে নির্বাচিত হন তারা ক্যারিয়ার এবং একাডেমিক ওয়ার্কশপ, নেটওয়ার্কিংয়ের সুযোগ এবং স্মৃতিগুলিতে অ্যাক্সেস পান যা আজীবন স্থায়ী হয়।

চলুন এখন আমরা জেনে নেয় জিএইচসি স্কলারশিপে আবেদন করার জন্য স্টুডেন্ট ও ফ্যাকাল্টিদের ঠিক কি কি যোগ্যতা থাকা আবশ্যক –

  • ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১(আবেদনকৃত সাল অনুযায়ী) এর মধ্যে কমপক্ষে ১৮ বছর বয়স হতে হবে।
  • আবেদনের সময় একটি কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় বা উচ্চ বিদ্যালয়ের অনুমোদিত ডিগ্রি প্রোগ্রামে ভর্তি হওয়া একটি পূর্ণ-সময়ের শিক্ষার্থী হতে হবে (২৯ সেপ্টেম্বর – ২২ শে অক্টোবর, ২০২১) উদযাপনের আগে স্নাতক প্রাপ্তরা অন্য কোনও ডিগ্রি প্রোগ্রাম (যেমন একটি এমএস বা পিএইচডি প্রোগ্রাম হিসাবে গ্রহণ না করা) যোগ্য বলে গণ্য হবেন না।
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান, কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বা বৈদ্যুতিক প্রকৌশল, মানব-কম্পিউটার মিথস্ক্রিয়া, গণিত, পদার্থবিজ্ঞান বা পরিচালন তথ্য সিস্টেমের মতো সম্পর্কিত প্রযুক্তিগত অনুশাসনের মতো সীমাবদ্ধ নয় এমন একটি ডিগ্রির দিকে সন্তোষজনক অগ্রগতি দেখানো।
  • কম্পিউটিংয়ের প্রতি আগ্রহ প্রদর্শন করতে সক্ষম এমন শিক্ষার্থী।
  • ২০২০ (আবেদনকৃত আগের সালে) একটি অ্যানিটাবি.আর.জি.এইচসি স্কলার হতে পারবে না।

আন্ডার গ্র্যাজুয়েট রিসার্চ স্কলারশিপ -বিমান খরচ সহ

ফ্যাকাল্টিদের আবেদনকৃত যোগ্যতা: GHCI ফ্যাকাল্টি ক্যাটাগরিতে আবেদনের জন্য আলাদা কিছু ক্রাইটেরিয়া আছে। চলুন সেগুলা দেখে নেই।

  • সম্মেলনের সময় কোনও অনুমোদিত কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতে হবে। সম্মেলনটি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের এবং শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করে না।
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান, কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং, বা বৈদ্যুতিক ইঞ্জিনিয়ারিং, মানব-কম্পিউটার মিথস্ক্রিয়া, গণিত, পদার্থবিজ্ঞান বা পরিচালন তথ্য সিস্টেমের মতো সম্পর্কিত প্রযুক্তিগত অনুশাসনের মতো সীমাবদ্ধ নয় এমন একটি ডিগ্রি প্রোগ্রামে অবশ্যই পড়াতে হবে।
  • ২০২০ (আবেদনকৃত আগের সালে) সালে একটি অ্যানিটাবি.আর.জি.এইচসি স্কলার হতে পারবে না।

এখন আমরা জানবো “গ্রেস হপার সেলিব্রেশন” এর স্কলারশিপের আমরা কিভাবে আবেদন করবো–

এটি একটি স্কলারশিপ অর্জনের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। এটিই ঠিক করে দিবে আপনি স্কলারশিপটি পাবার যোগ্য কি না।

“গ্রেস হপার সেলিব্রেশন” এর স্কলারশিপে আবেদনের ফর্মটিতে মোট ৯ টি সেকশন রয়েছে। সেগুলো নিচে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা হলো :

সেকশন ১ –   অ্যাপলিকেশন ইনফরমেশনঃ

 এখানে মূলত পার্সোনাল ইনফরমেশন যেমন আপনার নাম, ঠিকানা, ইনস্টিটিউটের (কলেজ/ইউনিভার্সিটি) নাম, কন্টাক্ট ইনফরমেশন দিতে হবে।

সেকশন ২ –  ডেমোগ্রাফিক  ইনফরমেশনঃ

এই সেকশনে আপনার জাতিগত পরিচয় যেমন এশিয়ান, মার্কিন, মার্কিন সিটিজেন কিনা, প্রাপ্তবয়স্ক কিনা ইত্যাদি ইনফরমেশন দিতে হবে। যদিও এই ইনফরমেশন গুলো স্কলারশিপ রিভিউতে কোনো প্রভাব ফেলে না। জিএইচসি প্রোগ্রামটির সফলতা বাড়ানোর জন্যে এই ইনফরমেশন গুলো তারা ব্যবহার করে থাকে।

সেকশন ৩ –  এডুকেশন  এবং  কেরিয়ার  ইনফরমেশনঃ

আপনি কোন ডিগ্রি প্রোগ্রামের, কোন বর্ষের স্টুডেন্ট, মেজর সাবজেক্ট কি এই ইনফর্মাশনগুলো এখানে দিতে হবে। টেকনিকাল কোন কোন সেক্টর বা সাবজেক্ট এ আগ্রহ আছে তাও এখানে জানাতে হবে । বর্তমান সিজিপিএ ৪.০ স্কেলে হিসেবে করে এখানে দিতে হবে (যাদের ইউনিভার্সিটিতে ৪.০ স্কেলে হিসেব করা হয় তারা ওটাই দিবেন)।

সেকশন ৪ –   এ্যাটেন্ডেন্স এবং  স্কলারশিপ  ইনফরমেশনঃ

আগে জিএইচসিতে অংশগ্রহণ করা হয়েছিল কিনা এবং অ্যানিটাবি.আর থেকে এর আগে স্কলারশিপ পাওয়া হয়েছিল কিনা তা এখানে পূরণ করতে হবে। যারা প্রথমবার এটেন্ড করছেন তাদের এই ফিল্ড গুলোতে “No” সিলেক্ট করতে হবে।

সেকশন ৫ –   সহজ প্রশ্নঃ

আবেদন ফর্মের সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ সেকশন এটি। এখানে দুটো প্রশ্ন দেয়া থাকে এবং স্কলারশিপট পাওয়া  যার উপর অনেকটাই নির্ভর করে। প্রত্যেক প্রশ্নের জন্যে সর্বোচ্চ ২০০ শব্দের প্রবন্ধ লিখতে হবে।

What are we looking for in a student scholar?

Student scholars are active in their community including being involved with campus computing/STEM clubs and working towards the advancement of women in computing.

An understanding of how attending GHC will have an impact on the scholar and any messages/key learnings they take back to share at their school.

Q1: Tell us why you want to attend GHC, what type of impact will being at a conference focused on women in computing have on you? (maximum 200 words)

জিএইচসি ওয়েবসাইট এপ্লিকেশন গাইডলাইন অনুযায়ী :

We strongly encourage you to share any experiences with overcoming unique, personally important, and/or challenging factors in your background.

While not an exhaustive list, some examples of unique challenges could include: the quality of your early educational environment, your socioeconomic background, culture, race, ethnicity, gender, sexual orientation, gender identity, having a disability, and other life or work experiences.

Please discuss how such factors have influenced your goals and preparation for your career as a woman in computing.

টিপস: উত্তরগুলো একটি গল্পের মতো করে সাজাতে হবে। তবে গল্পটি হতে হবে নিজের আগ্রহ, কম্পিউটার সাইন্স জগতে আসার পিছনে উৎসাহ ও প্রেরণার, আপনার একাডেমিক বা ক্যারিয়ার জীবনের বাঁধা- বিপত্তি কিভাবে অতিক্রম করছেন, টেক জগৎ  আপনাকে কিভাবে উৎসাহিত করে, কিভাবে আরো এগিয়ে যেতে পারবেন এই বিষয়গুলো ফোকাস করে লিখতে পারেন।

Q2: How will you share your experience at GHC with others? What type of impact will your experience at GHC have on others in your community? (maximum 200 words)

জিএইচসি ওয়েবসাইট এপ্লিকেশন গাইডলাইন অনুযায়ী:

Please tell us why you would like to attend the Grace Hopper Celebration and how you plan to share your experience with others (including your school community) after attending the conference.

This is your opportunity to share any information you believe will have an impact on being selected as an AnitaB.org GHC Scholar.

টিপস: এই প্রশ্নের মূল ফোকাস হচ্ছে আপনি কিভাবে আপনার সমাজে একজন টেকনোলজিস্ট হিসেবে অবদান রাখবেন। আপনি কিভাবে আপনার নেটওয়ার্ক বড় করবেন, কিভাবে অন্যদের সাহায্য করবেন। টেক জগতে মেয়েদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করতে আপনার লক্ষ্য  কি এবং তা বাস্তবায়নের আপনার আগ্রহ কেমন তা এখানে প্রকাশ করতে হবে।

উত্তরগুলো লিখার সময় অবশ্যই ব্যাকরণগত ভুলগুলো খেয়াল রাখতে হবে। বার বার পড়ে ভুলগুলোকে খুঁজে বের করতপ হবে । চাইলে অন্য কারো সাহায্যও নিতে পারেন ভুলগুলোকে খুজে বের করতে।  যাদের ইংলিশ গ্রামার ভালো বা ইংলিশে ভালো আর্টিকেল লিখতে পারে এরকম কারো সাহায্য নিতে পারেন

জিরো টু হিরো হতে চাইলে, পড়তে হবে জিরো টু ওয়ান বই

বিঃদ্রঃ

এখানে শেয়ার করা টিপস সম্পূর্ণই আমার ব্যক্তিগত মতামত। ফরম্যাট এরকমই হতে হবে এমন কোনো কথা নেই। এটি একটি গাইডলাইন মাত্র।

সেকশন ৬ –   সিভি/রেজুমি :  তোমার সিভি/রেজুমি এখানে আপলোড করতে হবে এবং সেটি পিডিএফ ফরম্যাটে দিতে হবে।

টিপস: আমার মতে সিভি যেন ১/২ পৃষ্ঠার বেশি না হয় এবং টেক বিষয়ক একটিভিটিস গুলো যেন সিভিতে লিখা থাকে যেমন, প্রোগ্রামিং কনটেস্ট, ক্যাম্প বা প্রজেক্ট ইত্যাদি। যদি কোনো প্রকার ভলান্টিয়ার কাজ থাকে তা উল্লেখ করার পরামর্শ দিবো। ইন্টারন্যাশনাল সিভির ফরম্যাটে ছবি দেয়ার প্রচলন এখন আর নেই। আমিও ছবি না দেয়ার পরামর্শ দিবো কারণ ছবিতে অনেক জায়গা নষ্ট হয় যেখানে তোমার গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো বেশি কাজে দিবে। সেগুলোই সুন্দর করে উপস্থাপন করবে। আপনার সিভিতে যেন প্রকাশ পায় যে তুমি টেকনিক্যাল ফিল্ডে একটিভ।

সেকশন ৭ –   আনঅফিশিয়াল  ট্রান্সক্রিপ্ট  :

 আপনার ডিপার্টমেন্ট থেকে একাডেমিক ট্রান্সক্রিপ্ট সংগ্রহ করে ফর্মটিতে পিডিএফ ফরম্যাটে আপলোড করতে হবে। ট্রান্সক্রিপ্টে যেন কোর্সের বিস্তারিত (কোর্সের নাম, ক্রেডিট) এবং গ্রেডিং সিস্টেম লিখা থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখা বাঞ্চনীয় ।

সেকশন ৮ –  রিকমেন্ডার  ইনফরমেশন  :

আবেদনকৃত ফর্মের আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ সেকশন এটি। এখানে তোমার ইউনিভার্সিটির একজন ফ্যাকাল্টি মেম্বারের রেকমেন্ডেশন লাগবে। তার ইনফরমেশন এখানে দেয়া হলে, তার কাছে একটি ইমেইল যাবে যেইটায় রেকমেন্ডেশন ফর্ম সাবমিট করার নিয়ম দেওয়া থাকবে।

সেকশন ৯ –  একনলেজমেন্ট :

আবেদনকৃত ফর্মের সর্বশেষ পর্যায় এটি , আপনি সব নিয়ম মেনে এপ্লিকেশনটি জমা দিচ্ছেন এবং সকল তথ্য সত্য, এরকম স্বীকারোক্তিমূলক টিক বক্স সিলেক্ট করতে হবে ফর্মটিতে । ফর্মের সব থেকে সহজ সেকশন এটি!

সম্পুর্ন আর্টিকেল এ গ্রেস হপার সেলিব্রেশন নিয়ে বিস্তারিত লিখেছি। যাতে করে আমাদের দেশ থেকে যারা গ্রেস হপার স্কলারশিপ এ আবেদন করতে চায়, তারা সহজে আবেদন করতে পারে। এখন আপনি নিজের ফেজবুকে শেয়ার করে বন্ধুদের জানিয়ে দিন।

জ্যোতির্ময়ী সাহা (জ্যোতি),

৭ম সেমিস্টার,

সিএসই ডিপার্টমেন্ট!

jyotirmoyisaha14@gmail.com

জ্যোতির্ময়ী সাহা (জ্যোতি),
0Shares
Asadullah

Asadullah

মোঃ আসাদুল্লাহ গালিব, পেশায় একজন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার এর শিক্ষার্থী আর নেশায় একজন কম্পিউটার বিজ্ঞানী। কম্পিউটার বিজ্ঞান এর অন্যতম ইমার্জিং এড়িয়া মেশিন লার্নিং, ড্ডিপ লার্নিং, বায়ো-ইনফরমেটিক্স নিয়ে কাজ করে থাকেন। এর বাইরে কম্পিউটার বিজ্ঞান, ক্যারিয়ার, ফ্রিল্যান্সিং এবং টেক উদ্যোগ নিয়ে লিখে থাকেন। তিনি নিজেও অনেক গুলো টেক ব্যাবসা এর সাথে সরাসরি জড়িত। গালিব নোটস মুলত ব্যাক্তিগত ব্লগ। বিল-গেটস এর ব্যাক্তিগত ওয়েব সাইট গেটস-নোটস এর নাম অনুসারে গালিব নোটস ব্লগের নাম-করন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close